বাংলাদেশে পিয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে ভারত

0
Array

অভ্যন্তরীণ বাজারে দরপতনের ফলে আবারও পিয়াজ রপ্তানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। গত ৮ই ডিসেম্বর পিয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছিল দেশটি। ওই সিদ্ধান্তের কারণে দেশটির পিয়াজের ওপরে নির্ভরশীল দেশগুলোতে পিয়াজের বাজারে অস্থিরতা সৃষ্টি হয়। অবশেষে প্রায় আড়াই মাসের মাথায় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে। প্রাথমিকভাবে বাংলাদেশসহ আরও মোট পাঁচ দেশে পিয়াজ রপ্তানি শুরু করবে দেশটি। এগুলো হচ্ছে, নেপাল, ভুটান, বাহরাইন ও মরিশাস। ফলে বাংলাদেশে ভারত থেকে সীমিত পরিমাণে পিয়াজ আমদানির আশা করা হচ্ছে।

এর আগে টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে জানানো হয়, রোববার ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সভাপতিত্বে এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়। অভ্যন্তরীণ বাজার নিয়ন্ত্রণে ২০২৩ সালে বারবার নানা পদক্ষেপ নিয়েছিল ভারত। ২৮শে অক্টোবর পিয়াজ টনপ্রতি রপ্তানিতে দাম ৮০০ ডলার বেঁধে দেয় দেশটি। তাতেও কাজ না হওয়ায় ৮ই ডিসেম্বর দেশটি ঘোষণা দেয়, ২০২৪ সালের ৩১শে মার্চ পর্যন্ত পিয়াজ রপ্তানি বন্ধ থাকবে।

ওই সিদ্ধান্তের পর পণ্যটির দাম তিন ভাগের এক ভাগ হয়ে যায় দেশটিতে। দামের এই পতনে চাষিরা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
এরই প্রেক্ষিতে টানা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছিল ভারতের চাষিরা। তাদের চাপে শেষমেশ পিয়াজের ওপর থেকে রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো দেশটির সরকার। শিগগিরই এ নিয়ে বিজ্ঞপ্তি আকারে ঘোষণা আসছে। উল্লেখ্য যে, ভারত রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা দিলে পরের দিনই বাংলাদেশের বাজারে পিয়াজের দাম কেজিতে ২০০ টাকা ছাড়িয়ে যায়। বর্তমানেও উচ্চদামে বিক্রি হচ্ছে পণ্যটি।

About Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • Click to Chat
  • Click to Chat
  • Click to Chat
  • Click to Chat