একযোগে ঢাকার ১২১ থানায় নির্বাচনবিরোধী লিফলেট ছড়ালো জামায়াত

0
Array

প্রহসনের নির্বাচন বর্জন, ভোটারদের ভোটদান থেকে বিরত থাকা, বিরোধীদল বিহীন কথিত নির্বাচন প্রত্যাখান এবং দেশের হারানো গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবিতে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসাবে ঢাকা মহানগরীর ১২১টি সাংগঠনিক থানায় একযোগে লিফলেট বিতরণ করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী। আলাদা প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জামায়াত ৬৮টি ও উত্তর জামায়াত ৫৩টি থানায় লিফলেট বিতরণ করেছে বলে দাবি করেছে।

গণমাধ্যমে পাঠানো প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে ঢাকা মহানগর উত্তর জামায়াত জানিয়েছে, সকালে মহানগরী প্রচার সম্পাদক আতাউর রহমান সরকারের নেতৃত্বে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে গণসংযোগ ও লিফলেট বিলি করেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তর হাতিরঝিল অঞ্চলের নেতা-কর্মীরা। প্রায় একই সময়ে রাজধানীর উত্তরার আজমপুর, মিরপুর, ভাষানটেক, কাফরুল, খিলগাঁওয়ের তালতলা বাজারসহ নগরীরর ৫৩টি ওয়র্ডের বিভিন্ন স্থানে লিফলেট বিলি ও গণসংযোগ করে দলটি। এসময় জামায়াত নেতারা জনগণকে প্রহসনের নির্বাচন বর্জন করার আহ্বান জানান।

উত্তারায় লিফলেট বিতরণকালে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সেক্রেটারি ড. মুহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, খুনী ও দুর্নীতিবাজ আওয়ামী বাকশালীদের সাজানো, পাতানো, তামাশা ও প্রহসনের নির্বাচন বর্জন এবং ভোটদান থেকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে বিরত থেকে সরকারের সকল দেশ, জাতিস্বত্তা, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার বিরোধী ষড়যন্ত্র ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দিতে হবে।

এ সময় কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের কর্মপরিষদ সদস্য মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ, মহানগরী মজলিসে শূরা সদস্য মাহবুবুল আলম, মাজহারুল ইসলাম, গাজী মনিরুল ইসলাম ও ইসলামী ছাত্রশিবিরের ঢাকা মহানগরী উত্তরের সভাপতি সালাহউদ্দীন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে একই সময়ে পল্টন, মতিঝিল, খিলগাঁও, যাত্রাবাড়ি, ওয়ারী, বংশাল, লালবাগ, চকবাজার, শাহবাগ, সবুজবাগ, রমনা, ধানমন্ডি, কোতোয়ালি, মুগদা, নিউমার্কেট, কলাবাগান, হাজারীবাগ, কদমতলী, শ্যামপুর, সূত্রাপুর, গেন্ডারিয়া, ডেমরা, শাহজাহানপুরসহ রাজধানীর ৬৮টি সাংগঠনিক থানায় একযোগে গণসংযোগ ও কয়েক লাখ কপি লিফলেট বিতরণ করেছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জামায়াত।

পল্টন থানার শান্তিনগর বাজারে গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণকালে দলের কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সহকারী সেক্রেটারি দেলাওয়ার হোসেন বলেন, বর্তমান ক্ষমতালোভী আওয়ামী সরকার ২০১৪ ও ২০১৮ সালের মতো করে দেশে আরেকটি প্রহসনের নির্বাচন বাস্তবায়নে মরিয়া হয়ে উঠেছে। আওয়ামী সরকারের আজ্ঞাবহ এই নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিলকে দেশপ্রেমিক জনগণ ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছে। ইতিমধ্যেই বাংলাদেশের জনগণ ও বিরোধী সকল রাজনৈতিক দল এই নির্বাচনকে বর্জন করেছে। এই অবৈধ সরকার ৭ জানুয়ারি যে নির্বাচনী খেলা ও প্রহসনের নাটক তৈরি করেছে, সচেতন নাগরিক হিসেবে সেই নির্বাচন বর্জন ও ভোট দান থেকে বিরত থেকে সরকারের ভোটাধিকার হরণের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণ করার জন্য আমরা ঢাকাবাসীকে আহবান জানাচ্ছি।

তিনি দেশের স্বার্থে, জনগণের অধিকার আদায়ের স্বার্থে এই পাতানো নির্বাচনে কোনো প্রকার সহযোগিতা না করার জন্য নির্বাচনের সাথে সম্পৃক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি আহ্বান জানান। একইসাথে এই অবৈধ সরকারের নির্দেশনা পালন থেকে বিরত থেকে জনগণের সেবক হিসেবে ভূমিকা পালনের জন্য প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি আহ্বান জানান।

এই সময় তার সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের মজলিসে শূরা সদস্য শাহীন আহমেদ খান, এডভোকেট মারুফুল ইসলাম, সুলতান উদ্দীন, আফম ইউসুফ, মোস্তাফিজ শাহীন ছাত্রনেতা তানভীরসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

About Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • Click to Chat
  • Click to Chat
  • Click to Chat
  • Click to Chat