এই সরকারের পতন বিএনপির একমাত্র চাওয়া : মির্জা ফখরুল

0
Array

সরকার পতনই বিএনপির একমাত্র চাওয়া বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, দীর্ঘ একযুগের বেশি সময় আমরা সংগ্রাম, লড়াই করছি এই ফ্যাসিবাদী, কর্তৃত্ববাদী, নিপীড়ন-নির্যাতনকারী সরকারের দমনপীড়নের বিরুদ্ধে। আমাদের লক্ষ্য একটাই, এই ফ্যাসিস্টদের হাত থেকে মুক্তি চাই, দেশ মুক্তি চায়।

বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) বিকেলে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে লক্ষ্মীপুর থেকে আসা আহত নেতা-কর্মীদের নিয়ে এক আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। গত ১৮ জুলাই লক্ষ্মীপুরে বিএনপির পদযাত্রায় আওয়ামী লীগের হামলায় কৃষক দলের সজীব হোসেন নিহত হন এবং পুলিশের গুলিতে অনেক নেতা-কর্মী আহত হন। তারমধ্যে ৬ জন দৃষ্টিশক্তিও হারান। আহত এসব নেতা-কর্মীদের সঙ্গে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের সহমর্মিতা প্রকাশের লক্ষ্যে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। লন্ডন থেকে স্কাইপে তাদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন তারেক রহমান।

অনুষ্ঠানে মির্জা ফখরুল বলেন, এই ফ্যাসিস্ট সরকারের অত্যাচার-নিপীড়ন থেকে মুক্তি পেতে ইতোমধ্যে অনেকে প্রাণ দিয়েছেন, সাধারণ মানুষ প্রাণ দিয়েছেন, অনেক মানুষ গুম হয়েছেন এবং সর্বশেষ ১৮ জুলাই আপনারা (লক্ষ্মীপুরের নেতা-কর্মীরা) শান্তিপূর্ণ মিছিল করছিলেন, সেই মিছিলে পুলিশ সরাসরি গুলি করে আমাদের ভাই সজীব হোসেনের প্রাণ কড়ে নিয়েছে। এখন একটাই চাওয়া, একটাই পথ, সেটা হচ্ছে এদের সরাতে হবে, এদের পতন ঘটাতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে এই দেশ নিরাপদ নয়, কেউই নিরাপদ নয়। আমাদের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য, অস্তিত্ব ফিরে পাওয়ার জন্য এ সরকারকে বিদায় করতে হবে। যারা মারা গেছেন তাদের পরিবার বোঝে, যন্ত্রণা ও কষ্ট কী, এই ত্যাগ কখনও বৃথা যাবে না।

বিএনপির চলমান আন্দোলনে দেশের মানুষ সঙ্গে আছে উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, দেশের মানুষ জীবন দিয়ে রাস্তায় নেমেছে। রাস্তায় নেমে এই সরকারকে সরানোর জন্য সংগ্রাম শুরু করেছে। বিশ্বাস করি যে, এই সরকারকে আন্দোলনের মাধ্যমেই সরাব এবং জনগণের যে সরকার সেই সরকার প্রতিষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে দলের পক্ষ থেকে নিহত সজীব হোসেনের পরিবার ও আহতদের আর্থিক অনুদান দেওয়া হয়।

লক্ষ্মীপুরের সাবেক এমপি ও দলের প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীর সভাপতিত্বে ও শাহাবুদ্দিন সাবুর সঞ্চালনায় আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবুল খায়ের ভুঁইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবে রহমান শামীম, কৃষক দলের হাসান জাফির তুহিন, পুলিশের গুলিতে দৃষ্টি শক্তি হারানো যুবদল কর্মী মোস্তফা কামাল, শ্রমিক দলের ইকবাল হোসেন, কৃষক দলের বোরহান উদ্দিন, নিহত সজীবের বাবা আবু তাহের প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ইসমাইল জবিহউল্লাহ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক হারুনুর রশীদ, বিএলডিপির মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম উপস্থিত ছিলেন।

About Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • Click to Chat
  • Click to Chat
  • Click to Chat
  • Click to Chat