বন্দুকধারীর লাইভ, লুটিয়ে পরছে মানুষ

0
Array

নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলাকারী হামলার মুহুর্তগুলো সরাসরি ফেসবুকে লাইভ করছিলেন। বিশ্বের যে কোনো প্রান্ত থেকে মানুষ সে ভিডিও দেখে শিওরে উঠেছিল। পাকিস্তান কিংবা যুক্তরাষ্ট্র নয়, নিউজিল্যান্ডের মত শান্ত ও নিরাপদ রাষ্ট্রের জন্য এ ঘটনা একইসঙ্গে বিষ্ময়কর ও নজিরবিহীন। ইউরোপে ইসলামপন্থী জঙ্গিদের হামলার প্রতিশোধ নিতে ৪৯ জন নিরিহ মানুষ হত্যা করেছে এই বন্দুকধারী। একইসঙ্গে নিজের হেলমেটে লাগানো গো-প্রো ক্যামেরা দিয়ে তা ভিডিও করেছে ও লাইভ সম্প্রচার করেছে।

এতে দেখা যায়, প্রথমে গাড়ি থেকে নামে ওই বন্দুকধারী। তখন গাড়িতে গান চলছিল। শান্তভাবেই সে গাড়ি পার্ক করে মসজিদের পাশে। এরপর গাড়ির পেছন থেকে বের করে একই অটোমেটিক রাইফেল।সেখানে আরো অস্ত্র রাখা ছিল, দেখে মনে হয়েছে আধুনিক কোনো অ্যাসাল্ট রাইফেল। এর ঠিক ১০ মিনিট আগে জুম্মার নামাজ শুরু হয়েছে মসজিদে। সে শান্তভাবে অস্ত্র হাতে নিয়ে মসজিদে ঢোকে। এরপর একে একে সামনে যাকেই সে পেয়েছে গুলি করেছে। সরাসরি ভেতরে প্রবেশ করে এলোপাথারি গুলি করতে থাকে। গুলি শেষ হয়ে গেলে সে বারবার ম্যাগজিন রিলোড করছিল। এক পর্যায়ে মসজিদের মধ্যে থাকা আহতদের সে গুলি করে মৃত্যু নিশ্চিত করে। একে একে সবাইকে হত্যার পর সে শান্তভাবে আবার বেরিয়ে আসে। বেরিয়ে আসার পরেও সে গুলি করেছে বলে জানানো হয়। তবে এ অংশটি ভিডিওতে দেখা যায়নি।

এ ধরনের ঘটনা প্রায়ই ঘটতে শোনা যায় যুক্তরাষ্ট্রতে কিংবা পাকিস্তানের মত সন্ত্রাসী অধ্যুষিত রাষ্ট্রে। কিন্তু নিউজিল্যান্ডে এমন হামলায় বিষ্মিত হয়েছে সমগ্র বিশ্ব। হামলার ধরন ও প্রকৃতি দেখে কারো বুঝতে কষ্ট হবে না এটি ছিল পূর্ব পরিকল্পিত। এই নৃশংসতার নিন্দায় স্বরব বিশ্বনেতারা।

About Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • Click to Chat
  • Click to Chat
  • Click to Chat
  • Click to Chat